মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

মুক্তিযুদ্ধে উলিপুর

        দেশের অন্যান্য জেলা উপজেলার মতো উলিপুর উপজেলার মুক্তিযুদ্ধের গৌরবান্বিত ইতিহাস রয়েছে। উলিপুর মুক্ত দিবস হলো ৪ ডিসেম্বর ১৯৭১। মহান মুক্তিযুদ্ধে এ উপজেলার বেশীর ভাগ অঞ্চল ১১ নং সেক্টরের এবং দূর্গাপুর,বেগমগঞ্জ, বুড়াবুড়ি ইউনিয়নের কিছু অংশ ৬ নং সেক্টরের অন্তর্ভূক্ত ছিল। হাতিয়া ইউনিয়নের দাগার কুটি নামক স্থানে ১৩ নভেম্বর ১৯৭১ সনে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে পাকবাহিনীর তুমুল লড়াই সংঘটিত হয়। এক পয©য়ে পাকবাহিনীর সৈন্যদের গুলিবর্ষণে স্থানীয় প্রায় ৬৯৭ জন সাধারণ গ্রামবাসী গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান। তাদের স্মরণে ঐ স্থানে একটি স্মৃতিফলক নির্মিত হয়েছে। উলিপুর রেল স্টেশনের পাশে একটি গণকবর রয়েছে। উলিপুর চিলমারী অঞ্চলের সাধারণ মানুষকে ধরে এনে হত্যা করে ঐ স্থানে মাটি চাপা দিয়ে কবর দেয়া হতো। এ উপজেলায় মোট ৮১৮ জন তালিকাভূক্ত মুক্তিযোদ্ধা আছেন। তন্মধ্যে ১৯ জন তালিকাভূক্ত শহীদ মুক্তিযোদ্ধা। দুঃস্থ মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ৭০৭ জন মুক্তিযোদ্ধাও তাদের পরিবারকে সরকারী ভাতা প্রদান করা হচ্ছে। বীর মুক্তিযোদ্ধাগণের সংগঠন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, উলিপুর কমান্ড এর নিব©চিত কমান্ডার হলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব ফয়জার রহমান।

ছবি



Share with :

Facebook Twitter